ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যাপস তৈরির প্রশিক্ষণ ভিডিও নির্মাণ শুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যাপস তৈরির প্রশিক্ষণ ভিডিও নির্মাণ শুরু

সারা দেশের ছেলে-মেয়েরা যাতে ঘরে বসেই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের জন্য মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনস (অ্যাপস) তৈরি শিখতে পারে, সে জন্য গতকাল মঙ্গলবার থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) শুরু হয়েছে প্রশিক্ষণ-ভিডিও নির্মাণ। অ্যাপস তৈরির জন্য ৪০ ঘণ্টার মাল্টিমিডিয়া ক্লাসের ভিডিও তৈরি করা হচ্ছে। খবর বিজ্ঞপ্তির।
ভিডিও তৈরির এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ। ক্লাসে অংশ নেওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারাই হবেন বিশ্বমানের আইসিটি (তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি) পেশাজীবী। আইসিটি খাতে এ দেশের আয় একদিন তৈরি পোশাক খাতকেও ছাড়িয়ে যাবে। দেশের ১৭টি জেলায় এরই মধ্যে ৭২৮ জন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ নির্মাতাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।’
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে। যাদের অনেকেই এ ধরনের কর্মকাণ্ডে নিয়োজিত হতে পারবে। শিগগিরই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা তারহীন ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের আওতায় আসছে বলে তিনি জানান।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন শিবলী রুবায়াত-উল-ইসলাম, সেন্টার ফর ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের পরিচালক আলতাফ জলিল, সরকারের জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপ উন্নয়নে সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কর্মসূচির প্রকল্প পরিচালক আবুল হাসান এবং এমসিসি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী আশ্রাফ আবির প্রমুখ।
জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপ উন্নয়নে সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৬৪ জেলায় যে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে, সেটির ডিজিটাল সংস্করণ তৈরি করা হচ্ছে। এ সংস্করণেই ক্লাসের ভিডিওগুলো স্থান পাবে।
ফলে ঘরে বসেই প্রশিক্ষণটি নেওয়া যাবে। পুরো প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ইএটিএল ও এমসিসি লিমিটেড।
সহযোগী হিসেবে আছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), মাইক্রোসফট, গ্রামীণফোন, রবি, নকিয়া, সিম্ফোনি, এসওএল কোয়েস্ট, গুগল ডেভেলপার গ্রুপ ও সেন্টার ফর ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট ঢাকা।